আমাদের টাইপ করা বইগুলোতে বানান ভুল রয়ে গিয়েছে প্রচুর। আমরা ভুলগুলো ঠিক করার চেষ্টা করছি ক্রমাগত। ভুল শুধরানো এবং টাইপ সেটিং জড়িত কাজে সহায়তা করতে যোগাযোগ করুন আমাদের সাথে।
মুসলিম বোন ও পর্দার হুকুম প্রিন্ট কর ইমেল
লিখেছেন শাহ্‌ ওয়ালী উল্লাহ   
Thursday, 19 June 2008
আর্টিকেল সূচি
মুসলিম বোন ও পর্দার হুকুম
গুরুত্বপূর্ণ বিষয়াবলী
সাবধান
ভয়াবহ পরিণতি
প্রত্যেক পিতার উদ্দেশ্য
অভিবাদন ও সুসংবাদ
শরীয়াতের দৃষ্টিতে পর্দার (হিজাবের) শর্তাবলী
তাহলে শোন উপদেশাবলী

অভিবাদন ও সুসংবাদ

ঐ সকল মুসলিম বোনের প্রতি, যারা শত্রুদের অজস্র কৌশলের সামনেও নিজেকে পরাজিত হতে দেয়নি। বিক্রি করে দেয়নি আল্লাহ্‌ কর্তৃক তাকে প্রদত্ত অমূল্য সম্পদ, ইয্‌যত ও আবরু। বরং সে তার সর্বশক্তি দিয়ে মাড়ির দাঁতের ন্যায় আঁকড়ে ধরে রেখেছে নিজের ব্যক্তিত্ব, সতীত্ব ও সম্ভ্রমকে। আর জাহেলিয়াতের মহা প্লাবনের মুখেও সে পালন করেছে আল্লাহ্‌র নির্দেশাবলীকে এবং বিরত রয়েছে নিষেধাবলী থেকে।

এভাবেই সে স্বীয় অস্তিত্বের সাথে ধারণ করেছে আল্লাহ্‌র কিতাব ও রাসূলের (সা:) সুন্নাহএক এবং সমুন্নত রেখেছে ইসলামের পতাকাকে এই বলে যে : “আমার হাতে আছে চির সমুন্নত সংবিধান আল কোর’আন ও রাসূল (সা:) সুন্নাহ্‌ যা আমাকে রক্ষা করবে সকল বিপদ থেকে। আর আমার হিজাব হল আমার ইয্‌যত, এ দুয়ের বদৌলতেই আমি হব বিশ্ব সভায় শ্রেষ্ঠত্বের আসনে সমাসীন।

তার জন্যই তার নবীর পক্ষ থেকে সুসংবাদ। যে সম্পর্কে আল্লাহ্‌র রাসূল (সাঃ) এরশাদ করেছেন সাহাবায়ে কিরামকে উদ্দেশ্য করে :

“নিশ্চয়ই তোমাদের পর এমন দিনকাল আসবে, যখন আল্লাহ্‌র দেয়া জীবন ব্যবস্হার সার্থক অনুসারীকে হতে হবে খুবই ধৈর্য্য ও সহনশীল। আর তাদের প্রতিদান হবে পঞ্চাশ জনের প্রতিদানের সমান ও অনুরূপ। তখন সাহাবায়ে কিরাম প্রশ্ন করলেন: হে আল্লাহ্‌র রাসূল (সা:)! তাদের থেকেই নাকি? উত্তরে রাসূলুলস্নাহ্‌ (সাঃ) বললেন : না, বরং তোমাদের মধ্যে থেকে (পঞ্চাশ জনের সমান ও অনুরূপ)।” (তিরমিযী, আবু দাউদ)।

তাদের প্রতি আরো সুসংবাদ হল যে, রাসূলুলস্নাহ্‌ (সা:) এরশাদ করেছেন:

“ইসলামের যাত্রা শুরু হয়েছিল অপরিচিত অবস্হায়। অচিরেই সে তার যাত্রাকালের অবস্হায় ফিরে আসবে। তবে গুরাবাদের জন্যে চরম সুখ ও শুভ সংবাদ।” সাহাবায়ে কিরাম প্রশ্ন করলেন গুরাবা কারা? হে আলস্নাহ্‌র রাসূল (সা:)! উত্তরে রাসূলুলস্নাহ্‌ (সা:) বললেন : “তারা হল ওরাই, যারা অধিকাংশ মানুষ বিভ্রান্ত হয়ে গেলেও নিজেরা সত্যকে সার্বিক জীবন ব্যবস্হায় আঁকড়ে ধরে রাখে, সৎ কর্ম পরায়ণতার সাথে।” (তিরমিযী)

উল্লেখ্য মুহাদ্দীসীনে কিরামের কেউ কেউ বলেছেন তুবা’ই হল জান্নাতের একটি গাছের নাম। মিথ্যা, অন্যায়, অনাচার ও বিভ্রান্তিকে উপেক্ষা করে শত বাঁধা বিপত্তির বেড়াজালকে ছিন্ন করে অতি ধৈর্য্যের সাথে যিনি আল্লাহ্‌ ও তাঁর রাসূলের (সা:) আদেশ নিষেধাবলীকে যথাযথ ভাবে পালন করেছেন, তার জন্যে আল্লাহ্‌র পক্ষ থেকে অভিবাদন।

পবিত্র কোর’আনের ভাষায় :

“তোমাদের প্রতি শান্তি বর্ষিত হোক। যেহেতু তোমরা দুনিয়ায় ধৈর্য্য ধারণ করেছ। আর তোমাদের এই আখিরাতের নিবাস কতই না চমৎকার ও উত্তম।” (সূরা রা’দ, ১৩ : আয়াত ২৪)



সর্বশেষ আপডেট ( Monday, 01 December 2008 )