আমাদের টাইপ করা বইগুলোতে বানান ভুল রয়ে গিয়েছে প্রচুর। আমরা ভুলগুলো ঠিক করার চেষ্টা করছি ক্রমাগত। ভুল শুধরানো এবং টাইপ সেটিং জড়িত কাজে সহায়তা করতে যোগাযোগ করুন আমাদের সাথে।
আধুনিক যুগে ইসলামী বিপ্লব প্রিন্ট কর ইমেল
লিখেছেন মুহাম্মদ কামারুজ্জামান   
Monday, 25 November 2013
আর্টিকেল সূচি
আধুনিক যুগে ইসলামী বিপ্লব
১. আধুনিক বিশ্বে ইসলামী পুনর্জাগরণ
২. বর্তমান প্রেক্ষাপট
৩.দেশে দেশে জন আকাঙ্ক্ষাঃ ইসলামী বিপ্লব
৪. ইসলামী বিপ্লব কি?
৫. ইসলামী বিপ্লবের প্রকৃতি ও বৈশিষ্ট্য
৬. বিপ্লব এনেছে জনতা
৭. জনতাই ইতিহাসের গতি নিয়ন্ত্রণ করে
৮. ইসলামী বিপ্লবের দুটো প্রধান বৈশিষ্ট্য
৯. ইসলামী বিপ্লবের ভিত্তি
১০. বিপ্লব রপ্তানি করা যায় না
১১. ইসলামী বিপ্লব সার্বজনীন
১২. ইসলামী বিপ্লব প্রসংগে মাওলানা মওদূদী
১৩. ইসলামী বিপ্লবের মডেল
১৪. ইসলামী আন্দোলনের চিত্র
১৫. ইসলামের মূল দাওয়াত
১৬. সংগঠন
১৭. ক্যাডার সিসটেম
১৮. নেতৃত্ব
১৯. গণতন্ত্রের শ্লোগান ও ইসলামী বিপ্লব
২০. রাজনৈতিক স্ট্যাটেজি
২১. ইসলামী আন্দোলনের প্রতিবন্ধকতা
২২. সমস্যার মোকাবিলায় করণীয়
২৩. গণআন্দোলন গড়ে তোলার প্রস্তুতি
২৪. গণচেতনার স্তর
২৫. জনতার দাবী
২৬. ইসলামী বিপ্লবের শর্ত
২৭. বিপ্লবের প্রক্রিয়া

৩.দেশে দেশে জন আকাঙ্ক্ষাঃ ইসলামী বিপ্লব

আজকের বিশ্বে লক্ষ্য করা যাচ্ছে যে, এমন একটা সময় আসছে যখন বিভিন্ন দেশ তার শিক্ষা, অর্থ, বিচার ব্যবস্থা এক কথায় জীবনের সব সমস্যার সমাধান একমাত্র ইসলামের মাধ্যমেই করতে চায়। আর এজন্যই একটি ইসলামীকরণ প্রক্রিয়া এগিয়ে চলেছে দেশে দেশে। এর সবচাইতে বড় প্রমাণ হচ্ছে আধুনিক বিশ্বের ইসলামী আন্দোলনগুলো।
বর্তমান দুনিয়ায় সবচাইতে পরিচিত দু’টো আন্দোলনের নাম জামায়াতে ইসলামী এবং ইখওয়ানুল মুসলিমুন। এছাড়াও তুরস্কে মিল্লি সালামত পার্টি বা ন্যাশনাল সলভেশন পার্টি, ফজিলত পার্টি বর্তমানে জাস্টিস এন্ড ডেভেলপম্যান্ট পার্টি, মালয়েশিয়ায় ইসলামিক পার্টি অব মালয়েশিয়া, ইয়েমেনে আল ইসলাহ পার্টি, ওলামা ও মোহাম্মদীসহ কতিপয় ইসলামী দল এবং মধ্যপ্রাচ্য, এশিয়া ও আফ্রিকায় বিভিন্ন দেশে বিভিন্ন সংগঠনও ইসলামী আদর্শ প্রতিষ্ঠার লড়াই করে যাচ্ছে। বিভিন্ন দেশে প্রায় ৩০ টি ছাত্র সংগঠন এবং ১২০ টির মত ছাত্র যুব সংগঠন এই প্রচেষ্টার সাথে সংশ্লিষ্ট। এশিয়া, আফ্রিকার সকল আরব দেশে ইখওয়ান বা অনুরূপ সংগঠন এবং উপমহাদেশের সকল দেশে জামায়াতে ইসলামীর তৎপরতা রয়েছে। ইউরোপ ও আমেরিকার দেশগুলোতে গড়ে উঠেছে অসংখ্য ইসলামী সেন্টার, মসজিদ ও ইসলাম চর্চা কেন্দ্র।
বর্তমান বিশ্বের প্রেক্ষাপটে ইসলামের জোয়ার কতটা প্রবাহিত হয়েছে বা কতটা গভীরভাবে বিশ্বকে নাড়া দিয়েছে তা পর্যালোচনা সাপেক্ষ হলেও মুসলিম দেশগুলোতে ইসলামী আন্দোলন বা ইসলামী শক্তির উত্থানের আলামত স্পষ্ট। ব্যাপক আন্দোলন হিসেবে হোক, আংশিক দাবী-দাওয়ার ভিত্তিতে হোক, ইস্যুভিত্তিক বা আত্মনিয়ন্ত্রণ অধিকারের প্রশ্নে হোক মুসলিম দেশসমূহের সরকারগুলো আর আগের মত ইসলামের সাথে যাচ্ছেতাই ব্যবহার করতে পারছে না। আমাদের জানা মতে আভ্যন্তরীণভাবে প্রতিটি মুসলিম দেশের এমন কি কতিপয় অমুসলিম দেশেও (যেখানে মুসলিম সংখ্যা উল্লেখযোগ্য) সরকারসমূহ ইসলামের অনুসারীদের পক্ষ থেকে এক ধরণের রাজনৈতিক চাপ অনুভব করছে। অবশ্য অনেক মুসলিম দেশ ইসলামী জাগরণে শংকিত এবং তারা প্রকাশ্যে অপ্রকাশ্যে নিয়ন্ত্রণমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করছে। এটা অবশ্যই দুর্ভাগ্যজনক যে, অনেক মুসলিম দেশে রাজনৈতিক ও গণতান্ত্রিক অধিকার স্বীকৃত নয়। কোন কোন দেশে নির্যাতন ও নিপীড়েনের ফলে কিছু কিছু লোক বিভ্রান্তির শিকার হচ্ছে। অধিকাংশ ক্ষেত্রে নিয়মতান্ত্রিক ও গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় আন্দোলন চললেও যেসব জায়গায় মুসলমানদের স্বাধীনতা ও আত্ননিয়ন্ত্রণের বিষয়টি জড়িয়ে গিয়েছে সেসব জায়গায় আন্দোলন জংগী রূপ নিয়েছে। যেমন ফিলিস্তিন, কাশ্মীর, ফিলিপাইন প্রভৃতি স্থানে মুসলমানরা জংগী তৎপরতায় নিমজ্জিত হয়ে গিয়েছে। এসবের সাথে সাধারণভাবে সমাজ পরিবর্তনের জন্য জামায়াতে ইসলামী ও ইখওয়ান যে নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে তার তুলনা করা বা এক করে দেখার কোন সুযোগ নেই।
পশ্চিমা সংবাদ মাধ্যম ইসলামের অনুসারীদের সক্রিয় রাজনৈতিক ভূমিকাকে মৌলবাদী কর্মকাণ্ড বলে আখ্যায়িত করলেও লক্ষণীয় যে উল্লেখযোগ্য বেশ ক’টি রাষ্ট্রে ইসলাম প্রতিষ্ঠার ইতিবাচক আন্দোলন সাম্প্রতিককালে বেশ গতি লাভ করেছে এবং শক্তি সঞ্চার করেছে।
কুরআন ও সুন্নাহ ভিত্তিক খোলাফায়ে রাশেদার অনুকরণে একটি ইসলামী রাষ্ট্রব্যবস্থার অধীনে বসবাস করার আকাঙ্ক্ষা প্রতিটি দেশের মুসলিম জনতার প্রাণের আকাঙ্ক্ষা। বৃহত্তর মুসলিম জনগণ স্বতঃস্ফূর্তভাবে এ আকাঙ্ক্ষা পোষণ করে থাকে। দেশে দেশে ইসলামী বিপ্লবের আকাঙ্ক্ষা আজ জন আকাঙ্ক্ষায় পরিণত হয়েছে।

বাংলাদেশের জনগণের দীর্ঘকালের আকাঙ্ক্ষা
বাংলাদেশ জনসংখ্যার দিক থেকে বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহৎ মুসলিম রাষ্ট্র। বিশ্বের মুসলিম জনসংখ্যার দশ ভাগের এক ভাগ ১৪৫ মিলিয়ন বাংলাদেশে বসবাস করে। বাংলা ভাষা বিশ্বের ৬ষ্ঠ বৃহৎ ভাষা। বাংলাদেশের শতকরা একশত ভাগ লোক একই ভাষায় কথা বলে। বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক রাজনীতি চালু রয়েছে। বাংলাদেশের প্রকৃতিক সম্পদ আছে। উর্বর জমি ও পরিশ্রমী মানুষ আছে। দেশটি খাদ্য উৎপাদনে স্বনির্ভর, মাথাপিছু আয় বাড়ছে, গড় আয়ু বাড়ছে, শিক্ষার হার বাড়ছে, মা ও শিশুর মৃত্যু হার কমছে এবং সামগ্রিক বিবেচনায় দেশটি এগিয়ে যাচ্ছে এবং বাংলাদেশের গুরুত্ব বৃদ্ধি পেয়েছে। ইসলামী আন্দোলনের ক্ষেত্রেও বাংলাদেশ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে। পৃথিবীর দ্বিতীয় বৃহত্তম মুসলিম জনগোষ্ঠী অধ্যুষিত আমাদের প্রিয় জন্মভূমি এই বদ্বীপ বাংলাদেশে ইসলামী শাসনের অধীনে বসবাসের আকাঙ্ক্ষা এখানকার জনগণের দীর্ঘকালের। এজন্যে তারা বার বার নেতাদের ডাকে সাড়া দিয়েছে। ত্রিশ ও চল্লিশের দশক থেকে এ যাবত প্রতিটি রাজনৈতিক পরিবর্তনে এই জন আকাঙ্ক্ষা প্রতিফলিত হয়েছে। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনক যে, জনগণের মনের কোণে লালিত এ পবিত্র আকাঙ্ক্ষা বাস্তবায়িত হয়নি আজও। তবে এ পথে দেশ যে খানিকটা এগিয়েছে এবং জনগণের এ আকাঙ্ক্ষা পূরণের সংগ্রাম অনেকটা সংঘবদ্ধ হতে যাচ্ছে একথা দ্বিধাহীন কণ্ঠে উচ্চারণ করা চলে।
কিন্তু ইসলামের ভিত্তিতে একটি ইসলামী বিপ্লব কি, বিপ্লব বা পরিবর্তনের যে প্রশ্নটি জনগণের আশা আকাঙ্ক্ষার মূল জিনিস সে বিপ্লবের অর্থ কি অথবা সে পরিবর্তন মানে কি তা আমাদের গভীরভাবে অনুধাবন করার সময় এসেছে।

 



সর্বশেষ আপডেট ( Saturday, 30 November 2013 )